Voice of SYLHET | logo

২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ৯ই আগস্ট, ২০২২ ইং

রাত পোহালেই ঈদ

প্রকাশিত : August 11, 2019, 19:54

রাত পোহালেই ঈদ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর পবিত্র ঈদুল আজহা আজকের রাত পোহালেই। নয় দিন আগে পশ্চিম আকাশে উদিত জিলহজ মাসের চাঁদ তাগিদ দিয়েছে কোরবানির। সর্বত্র খুশির আমেজ। অনেকের আবার কোরবানির পশু কেনাও শেষ। এখন শুধু অনাবিল আনন্দ উদযাপনের অপেক্ষা।
প্রতিবছর জিলহজ মাসের ১০ তারিখে ঈদুল আজহা উদযাপিত হয়। ঈদুল ফিতরের মতো ঈদুল আজহায় ঠিক আগের দিনে চাঁদ দেখা নিয়ে অনিশ্চয়তা নেই। ১০ দিন আগেই ঠিক হয়ে যায় ঈদের দিনক্ষণ। সে অনুসারে পশু কেনা থেকে গ্রামের বাড়িতে ফিরে যাওয়াসহ ঈদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করে থাকেন সবাই।ইতোমধ্যে কোরবানি দাতারা পছন্দের পশুটি কেনার জন্য সুবিধামতো বিভিন্ন হাটে যাচ্ছেন। অনেকে আবার কোরবানির পশু কিনে ভবনের কার পার্কিং ও সামনের ফুটপাতে রেখেছেন।

২৪ ঘন্টার মধ্যে পরিষ্কার হবে নগর:
এবার সিলেট নগরে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ করার ঘোষণা দিয়ে্েযছ সিসিক। এ কাজে নিয়োজিত থাকবেন স্থায়ী ও অস্থায়ী ১২০০ পরিচ্ছন্নকর্মী।এজন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি মজুদ রাখা হয়েছে।সিসিকের কনজারভেটিভ অফিসার হানিফুর রহমান বলেন, ঈদের দিন বিকেল থেকে এসব কর্মী কাজ শুরু করবেন সব মিলিয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নগরী থেকে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করা হবে।এর আগে শনিবার (১০ আগস্ট) নগর ভবনে কোরবানির বর্জ্য দ্রুত অপসারণের লক্ষ্যে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা শাখার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও পরিচ্ছন্ন কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। এজন্য পরিচ্ছন্ন শাখার কর্মকর্তা কর্মচারীদের ছুটিও বাতিল করা হয়েছে।

এদিকে সিটি করপোরেশনের ২৭টি ওয়ার্ডের মোট ৩০টি স্থান পশু কোরবানির জন্য নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। সেখানে প্যান্ডেল, পানিসহ যাবতীয় ব্যবস্থা থাকবে। তবুও কেউ যদি নির্ধারিত স্থানে কোরবানি দিতে না পারেন, তাহলে যেখানেই করবেন সেখানে পানি কিংবা রক্ত সংরক্ষণে রাখবেন। ড্রেন বা নালায় কোরবানির বর্জ্য ফেলবেন না।এছাড়া নগরীর বাসাবাড়ির কোরবানির বর্জ্য অপসারণের পাশাপাশি বৈধ-অবৈধ পশুর হাটের বর্জ্যও অপসারণ করা হবে বলে সিটি করপোরেশস সূত্র জানানো হয়েছে।

কোথায় কখন ঈদ জামাত:

আগামীকাল সিলেটের ঐতিহাসিক শাহী ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৮টায় পবিত্র ঈদ-উল-আযহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে। নামাজের ইমামতি করবেন বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম হাফিজ মাওলানা কামাল উদ্দিন। এর আগে বয়ান রাখবেন মাওলানা মোস্তাক আহমদ।

দরগাহে হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজারের মসজিদ প্রাঙ্গণে সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে ঈদুল আযহার জামাত ও হযরত শাহপরান (রহ.) মাজারের মসজিদ প্রাঙ্গণে সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে।

নগরীর কুদরত উল্লাহ জামে মসজিদে পৃথক তিনটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম জামাত সকাল ৭টায়, দ্বিতীয় জামাত ৮টায় এবং তৃতীয় জামাত ৯টায় অনুষ্ঠিত হবে।কালেক্টরেট মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

বিভাগীয় সদর দপ্তর জামে মসজিদ সিলেট-এ পবিত্র ঈদুল আযহার জামাত সকাল ৮ টায় অনুষ্ঠিত হবে।

আন্জুমানে খেদমতে কুরআন সিলেট-এর উদ্যোগে পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে সিলেট সরকারী আলীয়া মাদরাসা মাঠে ঈদের জামাত সকাল ৮ টায় অনুষ্ঠিত হবে।জামাতে ইমামতি করবেন বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন মাওলানা আব্দুস সালাম-আল মাদানী। এছাড়াও জামায়াতে মহিলাদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে।

এবার সিলেট নগরের ২৪৪টি ঈদগাহ ও মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া সিলেট জেলার ১০৬৫টি ঈদগাহ ও মসজিদে ঈদের জামাত আদায় করা হবে। এছাড়াও ঈদের জামাতের সময় বৃষ্টি হলে এলাকার সকল মসজিদে মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।
এদিকে পুলিশের পক্ষ থেকে বিশেষ নিরাপত্তার পাশাপাশি শাহী ঈদগাহে জায়নামাজ ছাড়া অন্য কোন কিছু সাথে না নেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে এবং যানজট নিরসনকল্পে মুসল্লিদের ব্যক্তিগত গাড়ি ঈদগাহ মাঠ থেকে দূরে পার্কিং করে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 816 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।