Voice of SYLHET | logo

৭ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২০শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

বছর বছর বিয়ে করে ২৮৬টি বিয়ে, গোপন ভিডিওতে প্রতারণা!

প্রকাশিত : November 24, 2019, 16:11

বছর বছর বিয়ে করে ২৮৬টি বিয়ে, গোপন ভিডিওতে প্রতারণা!

জাকির হোসেন ব্যাপারী, ২০০৫ সাল মাত্র ২১ বছর বয়সে প্রথম বিয়ে করেন। এরপর থেকে প্রতিবছর তিনি একটি করে বিয়ে করেছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে জাকিরের ২৮৬টি বিয়ে করার তথ্য ফাঁস হলেও এখন পর্যন্ত ‘কিছু কম’ বিয়ে করেছেন বলে পু্লিশকে জানিয়েছেন।

সম্প্রতি রাজধানীর মিরপুরের এক নারী জাকিরের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করলে গত বুধবার ফার্মগেট থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে তেজগাঁও থানা পু্লিশ। এরপর তাকে থানায় দুই দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। রিমান্ডে বের হয়ে আসতে শুরু করে নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য।

 থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শামীম অর রশিদ তালুকদার চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, জাকির হোসেন ব্যাপারী (৩৫) একজন প্রতারক। তার বিয়ে করা এক স্ত্রীসহ একটি চক্র আছে। তিনি প্রতি বছর বিয়ে করেন। তারপর শ্বশুর বাড়ি থেকে নানা কায়দায় অর্থ হাতিয়ে নেয়। এটাই তার মূল ব্যবসা।

এখন পর্যন্ত কয়টি বিয়ে করেছেন জাকির এমন প্রশ্নে ওসি তেজগাঁও বলেন, ‘ব্যক্তিগত বিষয় হবার কারণে তার এখন পর্যন্ত বিয়ের সংখ্যাটা আমরা বলতেছি না। তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ২৮৬টি বিয়ের প্রসঙ্গে তিনি আমাদের ‘কিছু কম’ করেছেন বলে জানান।’

শামীম অর রশীদ তালুকদার বলেন, মিরপুরের এক নারী জাকিরের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করে। সেই প্রেক্ষিতে আমরা তাকে গ্রেপ্তার করে দুই দিনের রিমান্ডে নিয়েছিলাম। রিমান্ড শেষে আজকে দুপুরে তাকে আদালতে

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজেকে লন্ডনের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রিধারী হিসেবে পরিচয় দেয়া জাকিরের গ্রামের বাড়ি লালমনিরহাট জেলার দুর্গাপুর।

তেজগাঁও থানার পুলিশ জানায়, জাকির বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন সময় নিজেকে অবিবাহিত এবং সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে নারীদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তুলতেন। তাদের মধ্যে অনেককে তিনি বিভিন্ন সময় বিয়ে করেন। বিয়ের পর জাকির নববধূর বাসায় থাকতেন এবং কৌশলে তার কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিতেন। এসব বিয়ের খবর তিনি কোনো স্ত্রীকে জানতে দিতেন না। সবারই ব্যক্তিগত ভিডিও ধারণ করতেন। কেউ প্রতিবাদ করলে ওই সব ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখাতেন।

জানা যায়, প্রতারণার ফাঁদ পেতে তরুণীদের সর্বস্ব লুটে নিতে জাকিরের রয়েছে এক সিন্ডিকেট চক্র। সংঘবদ্ধ ওই চক্রে রয়েছে নকল কাজী ও মৌলভি। এ ছাড়া চক্রের কিছু নারী-পুরুষ নিজের মা-বাবা ও ভাইবোন বানিয়ে জাকির তরুণীদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতেন। এভাবে বিয়ের নামে গত দুই বছরে জাকির ২২ ব্যবসায়ী ও চাকরিজীবী নারীকে ধর্ষণ করেছেন।

সম্প্রতি ফেসবুকে বিয়ের নামে আরেকটি প্রতারণার ফাঁদ পেতেছিলেন জাকির। অবশ্য এবার তিনি নিজেই ফাঁদে পড়েন, আগেভাগেই প্রতারণার শিকার নারী বুঝে ফেলেন জাকিরের উদ্দেশ্য।

ওই তরুণী জানান, ফেসবুকের মাধ্যমে গত ৩১ অক্টোবর জাকিরের সঙ্গে তার পরিচয়। এর পর ভুলিয়ে-ভালিয়ে তার সঙ্গে জাকির প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। গত ৭ নভেম্বর নিজস্ব সিন্ডিকেটের হুজুর ডেকে তাকে বিয়েও করেন। নানা বিপদ বা সমস্যার কথা বলে জাকির ওই তরুণীর কাছ থেকে ইতোমধ্যেই প্রায় ৪৫ হাজার টাকাও হাতিয়ে নিয়েছেন।

ভুক্তভোগী তরুণীদের মাধ্যমে পাওয়া গেছে জাকিরের তিনটি বিয়ের কাবিনসহ তার প্রতারণায় ব্যবহৃত অসংখ্য ছবি, ফেসবুকের চ্যাটবক্সে কথোপকথনের স্ক্রিনশট ও ভিডিও ক্লিপ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 169 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।