Voice of SYLHET | logo

৭ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২০শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

পেঁয়াজময় দিন, লবণময় রাত

প্রকাশিত : November 19, 2019, 11:08

পেঁয়াজময় দিন, লবণময় রাত

 

ভয়েসঅবসিলেট ডেস্কঃ  পেঁয়াজ নিয়ে এই হুলস্থূল ছিলো দিনভর। বিকেল হতেই পেঁয়াজের জায়গা নেয় লবণ। সোমবার বিকেল থেকে লবণের দাম বেড়ে যাচ্ছে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ে সিলেটজুড়ে। এমন খবরে ক্রেতারা হুমড়ি খেয়ে পড়েন সিলেট নগরীর ভোগ্যপণ্যের দোকানগুলোতে। বাড়তি চাপে নিমিষেই ফুরিয়ে যায় নগরীর বিভিন্ন দোকানের লবণের স্টক। আবার অনেক ব্যবসায়ী বেশি দামে বিক্রির জন্য লবণ মজুদ করে রাখেন বলেও অভিযোগ ওঠেছে।

সিলেট নগরী ছাড়াও পুরো বিভাগজুড়ে লবণ নিয়ে চলছে এই লঙ্কাকাণ্ড। প্রশাসন বলছে, লবণের দাম বৃদ্ধির খবর পুরোটাই গুজব। কেউ উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে এই গুজব ছড়াতে পারে।

ব্যবসায়ীরাও জানিয়েছেন, লবণের চাহিদামাফিক সরবরাহ আছে। শীঘ্রই দাম বাড়ার শঙ্কা নেই।

তবে ব্যবসায়ীরা এমনটি দাবি করলেও সোমবার রাতেই অনেক দোকানে বাড়তি দামে লবণ বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার রাতে সিলেট নগরীর কালিঘাটে লবণ ভর্তি দুটি ভ্যান জব্দ করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এসময় বিভিন্ন কোম্পানির প্রায় ১ হাজার কেজি লবণ জব্দ করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত লবণের অতিরিক্ত মূল্য রাখার দায়ে ২ ব্যবসায়ীকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করে। অতিরিক্ত দামে লবণ বিক্রির দায়ে সোমবার (১৮ নভেম্বর) জকিগঞ্জ, বড়লেখা, ছাতকসহ বিভিন্ন স্থানেও ব্যবসায়ীদের জরিমানা করা হয়েছে।

গুজবকে কেন্দ্র করে এই হুলস্থূলের প্রেক্ষিতে জনগণকে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সিলেট জেলা প্রশাসন, সিলেট জেলা এবং মহানগর পুলিশ। শ্রীমঙ্গলে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গুজবে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মাইকিং করা হয়েছে।

সোমবার রাতে নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, লবণ কেনার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন ক্রেতারা। বেশিরভাগ মুদি দোকানেরই মজুদ ফুরিয়ে গেছে। দোকানে লবণ না পেয়ে ক্রেতারা আক্রমণাত্মক আচরণ করতেও দেখা গেছে।

সব ক্রেতারই দাবি, লবণের দাম বাড়তে যাচ্ছে এমন খবর শুনেছেন। তাই লবণ কিনতে এসেছেন তারা। তবে কোথায় এমন সংবাদ শুনেছেন একথা কেউ বলতে পারেননি।

সুপারশপ স্বপ্ন’র হাউজিং এস্টেট শাখার ব্যবস্থাপক নাহিদ তারানা চৌধুরী বলেন, সন্ধ্যার পর থেকেই ক্রেতারা লবণ কিনতে ভিড় করেন। একেক জন ৪/৫ কেজি করে লবণ কিনে নিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন, আমাদের এখানে লবণের যথেষ্ট সরবরাহ রয়েছে। আমরা নির্ধারিত দামেই ক্রেতাদের লবণ বিক্রি করছি। লবণের দাম দ্রুত বাড়ার শঙ্কা নেই বলেও জানান তিনি।

তবে স্বপ্ন’র জিন্দাবাজার শাখার এক কর্মী বলেন, সন্ধ্যার পরই তাদের লবণের স্টক শেষ হয়ে গেছে।

দক্ষিণ সুরমার গোটাটিকরের মুদি দোকানি কয়েছ উদ্দিন কুটি বলেন, সন্ধ্যার পর আচমকা কেবল কেনার জন্য ক্রেতারা এসে দোকানে ভিড় করতে থাকেন। অল্প সময়ের মধ্যেই আমার দোকানের সব লবণ শেষ হয়ে যায়।

এ ব্যাপারে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) মো. জেদান আল মুসা লবণ নিয়ে গুজবে সাড়া না দেওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, এ ব্যাপারে পুলিশ সর্তক অবস্থায় আছে। লবণ নিয়ে যারা গুজব রটাবে তাদের বিরুদ্ধে কঠিন আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 197 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।