Voice of SYLHET | logo

১২ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৫শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

বিয়ানীবাজার আওয়ামিলীগের সম্মেলন,নতুন নেতৃত্বের আশা তৃণমূলের

প্রকাশিত : November 10, 2019, 07:08

বিয়ানীবাজার আওয়ামিলীগের সম্মেলন,নতুন নেতৃত্বের আশা তৃণমূলের

ভয়েসঅবসিলেট ডেস্কঃ স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীরা। দীর্ঘ ১৭ বছর পর আগামী ১৪ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হচ্ছে বহুল প্রতীক্ষিত উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। সম্মেলনকে ঘিরে উপজেলায় আওয়ামী লীগের রাজনীতি চাঙ্গার পাশাপাশি নেতাকর্মীদের মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। পৌর শহরের বিভিন্ন সড়কের মোড়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের স্বাগত জানিয়ে তৈরি করা হয়েছে বেশ কয়েকটি তোরণ। গোটা পৌরশহর ছেয়ে গেছে সভাপতি ও সম্পাদক পদপ্রার্থীদের ছবি সংবলিত পোস্টার, ফেস্টুন ও ব্যানারে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেইসবুকেও পদপ্রার্থীদের সমর্থকরা নিজেদের প্রার্থীর সমর্থনে প্রচারণা চালাচ্ছেন।
বহুল প্রতীক্ষিত এ সম্মেলনে উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও পৌর মেয়রও প্রার্থী হয়েছেন। সভাপতি পদে লড়ছেন দুইজন আর সাধারণ সম্পাদক পদে ৬ জন।

দ্বিধাবিভক্ত উপজেলা আওয়ামী লীগে সম্মেলনকে সামনে রেখে ইতোমধ্যেই শুরু হয়েছে ব্যাপক জল্পনা কল্পনা। দিনক্ষণ যতই ঘনিয়ে আসছে নেতাকর্মীদের মধ্যে ততই উৎসাহ উদ্দিপনা বিরাজ করছে। তবে কোন পদ্ধতিতে উপজেলার সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক নির্বাচন করা হবে, তা নিয়ে সন্দিহান দলীয় নেতাকর্মীরা। এ নিয়ে সভাপতি-সম্পাদক পদে প্রার্থীদের মধ্যে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে। তারা দফায়-দফায় বৈঠক করে শক্তি ও জনবল বৃদ্ধির কৌশল নির্ধারণ করছেন।

সূত্রে জানা গেছে, বিয়ানীবাজার আওয়ামী লীগের শক্ত ঘাঁটি হিসেবে সর্বত্র পরিচিত। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ‘ইলেকশন নাকি সিলেকশনে’ করা হবে, সে প্রশ্নই এখন সবার মুখে। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপির নিজের নির্বাচনী এলাকা হওয়াতে জেলা নেতৃবৃন্দ তার মতামতকেও গুরুত্ব দেবেন বলে মনে করছেন নেতাকর্মীরা। এতে কাউন্সিলে নেতৃত্ব নির্বাচন নিয়ে সন্দেহ-অবিশ্বাস ক্রমেই বাড়ছে। তবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ জাকির হোসেন বলেন, সম্মেলনের পুরো প্রস্তুতি চলছে। কাউন্সিল ছাড়া নেতৃত্ব নির্বাচনের আর কোন সুযোগ নেই।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাছিব মনিয়া বলেন, বিয়ানীবাজার আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠানে প্রায় ২বছর আগে প্রতিটি ইউনিয়ন থেকে ২১জন কাউন্সিলরের একটি তালিকা জমা নেয়া হয়। কিন্তু গঠনতন্ত্র পরিবর্তন হওয়ায় এখন ইউনিয়ন প্রতি আরো ১০জন করে কাউন্সিলর বাড়ানো হয়েছে।

বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক এ সম্মেলনে সভাপতি পদে আব্দুল হাছিব মনিয়া, আতাউর রহমান খান, সাধারণ সম্পাদক পদে মোহাম্মদ জাকির হোসেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাশেম পল্লব, ভাইস চেয়ারম্যান জামাল হোসেন, দেওয়ান মাকসুদুল ইসলাম আউয়াল, হারুনুর রশীদ দিপু, পৌর মেয়র আব্দুস শুক্কুর, কাউন্সিলারদের দ্বারে-দ্বারে যাচ্ছেন।
অন্যান্যপদে আরো রয়েছেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রুকসানা বেগম লিমা, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান রুমা চক্রবর্তী, চারখাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদ আলী, শেওলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জহুর উদ্দিন, মাথিউরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিহাব উদ্দিন, লাউতা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গৌছ উদ্দিন, দুবাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, মুড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, আরবাব হোসেন খান, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সাব্বির উদ্দিন, কামরুল হক, আলমগীর হোসেন রুনু, প্রভাষক আব্দুল খালিক, আতিকুর রহমান।
সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাছির উদ্দিন খান বলেন, নির্ধারিত তারিখেই বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এখানে কেউ পক্ষ নেওয়ার সুযোগ নেই। কাউন্সিলরদের ভোটেই নতুন নেতৃত্ব আসবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 299 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।