Voice of SYLHET | logo

১৭ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ১লা জুলাই, ২০২২ ইং

ওসমানীনগরে ওসির বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে রাতভর থানায় গানের আয়োজন!

প্রকাশিত : October 11, 2019, 19:57

ওসমানীনগরে ওসির বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে রাতভর থানায় গানের আয়োজন!

ওসমানীনগর প্রতিনিধি:

সিলেটের ওসমানীনগর থানার ওসি এসএম আল মামুন। তার এই থানায় যোগদানেরে একবছর পূর্ণ হয়েছে। আর এ উপলক্ষে থানা কম্পাউন্ডেই আয়োজন করেছেন এক জমকালো মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। সাথে নৈশভোজও।

গত বৃহস্পতিবার রাতে ওসমানীনগর থানা পুলিশের উদ্যোগে বণার্ঢ্য এ আয়োজন সম্পন্ন হয়।
অনুষ্ঠানে ওসি এসএম আল মামুনসহ বিভিন্ন পুলিশ কর্মকর্তাগণের পরিবার ও রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দসহ শতাধিক লোক উপস্থিত ছিলেন বলে জানা যায়। থানা কম্পাউন্ডের ভিতরে সাউন্ড সিস্টেমের মাধ্যমে গভীর রাত পর্যন্ত চলে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানের শুরুতে শেরওয়ানি পরে বরের বেশে এসে বিশাল আকারের একটি কেক কাটেন ওসি আল মামুন। অনুষ্ঠানে নামি দামী শিল্পিরা পারফরমেন্স করেন। নৈশভোজে মাছ, মাংসসহ অনেক ধরণের খাবার পরিবেশন করা হয়।
এ সব কর্মকান্ডে উপজেলা জুড়ে সমালোচনার ঝর উঠেছে। কারো চাকুরীতে যোগদানের বর্ষপুর্তীতে ওসমানীনগর থানায় এর আগে কখনো ঘটা করে এ ধরণের অনুষ্ঠান হতে দেখা যায়নি। ফেসবুকে এই অনুষ্ঠানের লাইভ ভিডিওসহ স্থির চিত্র ছড়িয়ে পড়ার পর এলাকা জুড়ে সমালোচনার সৃষ্টি হয়। অনেকে ফেসবুকে অনুষ্ঠান নিয়ে বিরূপ মন্তব্যও উপস্থাপন করেন।

উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি ইকবাল আহমদ তার ফেসবুক আইডিতে অনুষ্ঠানের ছবি সম্বলিত একটি লেখা পোস্ট করেন। তার পোস্টে ওসির শেরোওয়ানী পরিহিত ছবি দেখে ংুুঁধষ ভী নামের একটি আইডি থেকে মন্তব্য করেন, ‘আমি মনে করছি ওসি সাহেবের বিবাহ বার্ষিকী’। মৌলানা হুছাইন আহমদ নামের অপর আইডি থেকে ‘ইনকাম অনুযায়ী আপ্যায়ন হয়তো ওনার ইনকাম বেশি হচ্ছে’ বলে মন্তব্য করেন। ঝযধয অনফঁৎ জড়ন নামের আইডি থেকে লিখা হয়‘ মগের মুল্লুক মনে হচ্ছে, তাই থানা হয়ে গেছে বাংলো / বাড়ী’।
বালাগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা তুহিন মনসুর লিখেন, ‘আমার জীবনেও এমন অনুষ্ঠান দেখিনি, এই প্রথম দেখলাম। বালাগঞ্জ থানার পাশে আমার বাড়ি, কেক কাটতে শুনিনি কোন দিন।

ওসমানীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান চৌধুরী নাজলু বলেন, ওসি সাহেবের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক দাওয়াত পেয়ে সেখানে গিয়েছিলাম। দাওয়াত খেয়ে চলে এসেছি। ওসির বর্ষপূর্তিতে এধরণের অনুষ্ঠান আগে কখনো দেখিনি।

যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অরুনোদয় পাল ঝলক বলেন, ব্যতিক্রমী এই অনুষ্ঠানের দাওয়াত পেয়েছিলাম কিন্তু কাজ থাকায় যেতে পারিনি।

ওসমানীনগর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আনা মিয়া বলেন, দাওয়াত পেয়ে অনুষ্ঠানে গিয়ে দেখি ওসির বর্ষপূর্তী উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য আয়োজন করা হয়েছে। আমি দাওয়াত খেয়ে চলে এসেছি।
এ ব্যাপারে ওসমানীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবদাল মিয়া বলেন, খাবার দাওয়াত পেয়ে থানায় গিয়ে দেখি এ আয়োজন।

জেলা পরিষদ সদস্য আশিক মিয়া বলেন, থানায় এ ধরণের অনুষ্ঠান আমি প্রথম শোনলাম। গান বাজনার আয়োজন না করে গরিবদের খাওয়ালে ভালো লাগতো।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার বলেন, কর্মস্থলে যোগদানের বর্ষপুর্তিতে এ ধরণের অনুষ্টান আয়োজনের কোন নিয়ম নেই। এ বিষয়ে আমি জ্ঞাত নই। আমাকে কেউ কিছু বলেনি।

সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি কামরুল হাসান বিপিএম (বার) বলেন, সিলেট রেঞ্জে যোগদানের আমারওতো প্রায় তিন বছর হয়ে গেলো। কই, কখনো তো এ ধরণের অনুষ্ঠান করতে দেইনি। ওসি যোগদানের একবছর পুর্তীতে ওসমানীনগর থানায় এ ধরণের আয়োজনের বিষয়ে আমি কিছু জানি না। বিষয়টি দেখবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 211 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।