Voice of SYLHET | logo

৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২০শে মে, ২০২২ ইং

বোমামেশিন শূন্য শাহ আরেফিন টিলা, প্রশংসায় ভাসছেন ওসি তাজুল ইসলাম

প্রকাশিত : September 30, 2019, 13:00

বোমামেশিন শূন্য শাহ আরেফিন টিলা, প্রশংসায় ভাসছেন ওসি তাজুল ইসলাম

 

কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি:- বারবার প্রশাসনের অভিযান পরিচালনার পরও সিলেটের কোম্পানীগঞ্জের শাহ আরফিন টিলায় বন্ধ হচ্ছিলনা অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন। প্রতিদিন সমান তালেই চলছিল পরিবেশ ধ্বংসের মহোৎসব।

কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশের নেতৃত্বে গত ০৮ ও ১২ সেপ্টেম্বরের দুটি অভিযানে প্রায় ৮০ লক্ষ টাকার বোমা মেশিন সহ ১৫/১৬ লক্ষ টাকার পাইপ ও যন্ত্রাংশ ধ্বংস করার পরেও থামানো যাচ্ছিলনা বোমা মেশিনের তান্ডব।

এর পর উপজেলা প্রশাসনের উদ্দ্যেগে গত ২৩ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবারে টাস্কফোর্স অভিযান পরিচালনা করে প্রায় ১ কোটি টাকা সম মূল্যের বোমা মেশিন ও ৭/৮ লক্ষ টাকার পাইপ ও যন্ত্রাংশ ধ্বংস করা হয়।পর পর তিনটি অভিযানেও যখন বোমা মেশিন বন্ধের কোন কার্যক্রম দেখা যাচ্ছিলনা তখন কোম্পানীগঞ্জ থানার উদ্দেগে বোমা মেশিন বন্ধে শাহ আরফিন টিলা এলাকায় মাইকিং করে সতর্কবার্তা জারী করা সহ ২৭ সেপ্টেম্বর শুক্রবারে শাহ আরফিন বাজারে এক অপরাধ সভার আয়োজন করা হয়।

উক্তসভায় কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি তাজুল ইসলাম (পিপিএম)- বোমা মেশিন মালিকদের উদ্দেশ্য কঠোর হুশিয়ারী উচ্চারণ করে জানান, “এক দিন সময় দিয়ে গেলাম,এই এক দিনের মধ্যে সব বোমা মেশিন কোয়ারি থেকে উঠিয়ে ফেলতে হবে”।এই হুশিয়ারী শুনার পর থেকে বোমা মেশিন মালিকদের মাঝে এক আতংকতা বিরাজ করতে থাকে।শুক্রবার রাত থেকেই সব ধরনের বোমা মেশিন উঠানো শুরু করে।বর্তমানে শাহ আরফিন কোয়ারীতে সব ধরনের ছোট বড় বোমা মেশিন বন্ধ রয়েছে।

ওসি তাজুল ইসলাম (পিপিএম)’র পূর্ব নির্ধারিত বোমা মেশিন উঠিয়ে নেওয়ার একদিন সময় দেওয়ার ঘোষণা অনুযায়ী একদিন পড়ে অদ্য ২৯ সেপ্টেম্বর রবিবার কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ ও সিলেট পুলিশ লাইনের স্পেশাল পুলিশ সদস্যরা যৌথভাবে অভিযান পরিচালিত করে। অভিযানে নেতৃত্ব দেন কোম্পানীগঞ্জ থানার সেকেন্ড অফিসার (অপারেশন) খাইরুল বাশার। অভিযানে শাহ আরফিন টিলার কোথাও কোন বোমা মেশিনের অস্থিত্বই খুজে পায়নি পুলিশ।

উল্লেখ্য, পরিবেশ বিধ্বংসী বোমা মেশিনের তান্ডবে সবুজ বনাঞ্চল খ্যাত শাহ আরফিন টিলার বিস্থির্ণ ভূমি এলাকা বিরান ভূমিতে পরিনত হয়।বর্তমানে এই শাহ আরফিন টিলায় গাছ গাছালি না থাকলেও আছে কেবল বিস্তৃত থৈ থৈ নীল জলের নীরব অস্থিত্য।

বর্তমান ওসি তাজুল ইসলাম (পিপিএম) কোম্পানীগঞ্জ থানায় যোগদানের পূর্বেই শাহ আরফিন টিলা এলাকা বিরান ভূমিতে পরিনত হয়। তিনি যোগদানের পরে শাহ আরফিন এলাকায় বোমা মালিকেরা কিছু কিছু জায়গায় চুরি করে বোমা মেশিন দিয়ে পাথর উত্তোলন চালালেও দীর্ঘ দিনধরে ওসি তাজুল ইসলাম কঠোর অবস্থানে থাকার কারনে বোমা মেশিন মালিকরা কোন সুযোগ সুবিধা আদায় করতে না পারায় এই পেশা ছেড়ে অন্য পেশায় চলে যাচ্ছে। বর্তমানে বোমা মুক্ত শাহ আরফিন এলাকা।ওসি তাজুল ইসলামের এই প্রশংনীয় কাজে প্রশংসায় ভাসছে কোম্পানীগঞ্জ থানা।

এ ব্যাপারে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি তাজুল ইসলাম (পিপিএম) জানান,- “আমি ঘোষনা দিয়েছিলাম বোমা মেশিন আর চলবেনা এবং চলতে দেওয়া যাবেনা।পরিবেশের ক্ষতি করে কোন প্রকার বোমা মেশিন চালানো যাবে না।এর পরেও যারা চুরি করে বোমা মেশিন চালাবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে”।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 470 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।