Voice of SYLHET | logo

৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২১শে মে, ২০২২ ইং

সিলেটে নাটক তৈরির নামে বাড়ছে ধর্মীয় পোষাকের অপব্যবহার

প্রকাশিত : September 20, 2019, 15:12

সিলেটে নাটক তৈরির নামে বাড়ছে ধর্মীয় পোষাকের অপব্যবহার

ইমরান:
সিলেটী নাটক বা কৌতুকে ইসলামী পোষাক পাঞ্জাবী, টুপি, ও বোরকার অপব্যবহার করছেন এক শ্রেণীর নাট্যশিল্পীরা। তাদের এসব কর্মকান্ডে দিনে দিনে ক্ষোভ বাড়ছে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের মধ্যে। ইসলাম ধর্ম অনুসারীদের দাবি নাটক তৈরির নামে ধর্মীয় পোশাক অপব্যবহার বন্ধ করতে হবে। না হলে তাদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া একাধিক ভিডিওতে দেখা যায়, পাঞ্জাবী পরিহিত পুরুষ এবং বোরকা পরিহিত নারীরা নাট্যাংশে অংশ নিচ্ছেন। পুরুষদের কেউ কেউ নকল দাঁড়ি লাগিয়ে তারা নাটকে অভিনয় করছেন। ধর্মীয় পোশাক পড়ে অভিনয় করলেও নানা অশ্লীল অভিনয় করতে দেখা যায় তাদের। এ নিয়ে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুক, ট্যুইটারে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে সাধারণ মানুষরা এসব নাটককে ‘অশ্লীল’ আখ্যা দিয়ে নানান মন্তব্য করছেন। সুশিল সমাজের প্রতিনিধিরা মনে করেন, শাহজালালের মাটি সিলেটে এরকম পোষাক পরিধান করে নাটক তৈরীর নামে মুসলিম জনগোষ্ঠীরর জীবনাচরণ ভূলভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে। আর এসবের মাধ্যমে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যকে কলুষিত করা হচ্ছে। তারা বলছেন পরিকল্পিতভাবে নির্দিষ্ট একটা জনগোষ্ঠীকে কলুষিত করার জন্য পাঞ্জাবী টুপি পরে দাঁড়ি লাগিয়ে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গিতে নাটক করে যাচ্ছেন। কেউ কেউ বলছেন ধর্মীয় পোশাকের অপব্যবহারের কারণে আইসিটি বা ব্লাসফেমি আইনে এসব কথিত নাট্যশিল্পীদের বিরুদ্ধে মামলা করা উচিত।

ফেসবুকে এরকম একটি ভিডিও শেয়ার করে একজন লিখেছেন ‘পাঞ্জাবী পরিহহিত লোকটা কোনো হুজুর বা মৌলভী নয়। নাটকে অভিনয়ের নামে শাহজালালের পূণ্যভূমিতে কিছু লোক ধর্মীয় পোশাকের ব্যবহারে অবাধে অপসংস্কৃতির বিষবাষ্প ছাড়াচ্ছে। এসব কথিত নাট্যশিল্পীদের বিরুদ্ধে ধর্মীয় পোশাক অবমাননার দায়ে মামলা করা উচিত।’

আরেকজন ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘সিলেটী নাটকের নামে এসব লোকেরা সিলেটের ধর্মীয় সম্প্রীতির পরিবেশ নষ্ট করছে। নাটক হতে পারে সমাজ পরিবর্তনের হাতিয়ার কিন্তু কিছু লোক ধর্মীয় পোশাককে পুঁজি করে ব্যবসা করছে। এদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা উচিত।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সচেতন মুসলিম যুব সমাজ সংগঠনের নেতা সিদ্দিক আহমদ বলেন, ‘অবিলম্বে এসকল নাটক তৈরীর সাথে সংশ্লিষ্টদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। অন্যথায় এরকম নাটক মঞ্চস্থকারীদের বিরুদ্ধে সিলেটবাসী জেগে উঠবে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 808 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।