Voice of SYLHET | logo

৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২০শে মে, ২০২২ ইং

গ্যাস-বিদ্যুৎ ছাড়াই ১৫ ঘন্টা শাবি উপাচার্য

প্রকাশিত : January 24, 2022, 11:46

গ্যাস-বিদ্যুৎ ছাড়াই ১৫ ঘন্টা শাবি উপাচার্য

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ গ্যাস বিদ্যুৎ সংযোগ ছাড়াই অবরুদ্ধ রয়েছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমদ। রোববার সন্ধ্যার দিকে তার পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা গ্যাস-বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।

গতকাল সন্ধ্যায় গ্যাস বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে মানবপ্রাচীরের মাধ্যমে উপাচার্যের বাসভবন অবরুদ্ধ করে রাখে। ১২ ঘন্টা পেরিয়ে এখনো পর্যন্ত অবরুদ্ধ রয়েছেন উপাচার্য। শিক্ষার্থীরা নিরাপত্তায় নিয়োজিত পুীলশ সদস্য ছাড়া কাউকে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না।

এরআগে রোববার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে মশাল মিছিল করে। এসময় তারা উপাচার্যের কুশপুতুল দাহ করে। এরপর তারা উপাচার্যের বাসভবন ঘেরাও করে।

বাসভবন ঘেরাও কর্মসূচি শুরু করার পর শিক্ষার্থীরা জানান পরিস্থিতি যেভাবে এগোচ্ছে, এতে তাদের বাধ্য করা হচ্ছে আরো কঠোর কর্মসূচির দিকে যেতে। তারা বলেন, উপাচার্যের বাসভবনে পুলিশ ছাড়া কেউ ঢুকতে পারবে না।

রাতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের পক্ষে নাফিসা আনজুম বলেন, আমাদের অনশনরত ভাই-বোনেরা যখন অনশনে কষ্ট করছেন, ভিসি তখন আরামে দিন কাটাচ্ছেন। এটা আমরা মেনে নিতে পারছি না। আন্দোলনের অংশ হিসেবে উপাচার্যের বাসভবনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। উপাচার্য পদত্যাগ না করা পর্যন্ত প্রতিদিনই আন্দোলনে উপাচার্যের কুশপুতুলে আগুন দেওয়া হবে।

এদিকে, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশের হামলার ঘটনায় উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগের বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে শাবিপ্রবি শিক্ষক সমিতি। পাশাপাশি নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান তারা।

রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের মিনি অডিটোরিয়ামে আয়োজিত শিক্ষকদের এক সভায় এই সিদ্ধান্ত নেন সমিতির নেতারা। সভায় চলমান সংকট নিরসনে চার দফা দাবি জানানো হয়।

অন্যদিকে শাবিপ্রবির চলমান সংকট নিরসনে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা। রোববার বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক ১০৫ নেতা বিবৃতি দেন। এতে বর্তমান পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে দ্রুত সমাধানের আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে তিন দফা দাবি তুলে ধরা হয়।

গত ১৩ জানুয়ারি থেকে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের প্রভোস্ট কমিটির পদত্যাগসহ তিন দফা দাবিতে আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা। পরে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিও সামনে আসে।

এরপর ১৬ জানুয়ারি বিকেলে তিন দফা দাবি আদায়ে উপাচার্যকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইআইসিটি ভবনে অবরুদ্ধ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে পুলিশ উপাচার্যকে উদ্ধার করতে গেলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই সময় পুলিশ সাউন্ড গ্রেনেড, টিয়ারসেল ও রাবার বুলেট ছুড়ে শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হন। পুলিশ ৩০০ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মামলা করে।

১৯ জানুয়ারি বিকেলে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে তার বাসভবনের সামনে আমরণ অনশন শুরু করেন ২৩ জন শিক্ষার্থী। একই দাবিতে পরদিন বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে কয়েকশো শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসে মশাল মিছিল বের করেন। অনশনে অসুস্থ ১৬ শিক্ষার্থী বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 42 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।