Voice of SYLHET | logo

৯ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২২শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

সিলেট পলিটেকনিকে বহিরাগতদের হল ছাড়ার নির্দেশ : মুখোমুখি অবস্থানে প্রিন্সিপাল ও ছাত্রলীগ।

প্রকাশিত : January 13, 2022, 23:00

সিলেট পলিটেকনিকে বহিরাগতদের হল ছাড়ার নির্দেশ : মুখোমুখি অবস্থানে প্রিন্সিপাল ও ছাত্রলীগ।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সিলেট পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সুরমা ছাত্রাবাস পরিচালনা নিয়ে ছাত্রলীগ ও কলেজ প্রশাসন মুখোমুখি অবস্থানে। ছাত্রাবাসে অবস্থানরত অছাত্র ও বহিরাগতদের ছাত্রাবাস ও ক্যাম্পাস ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে কলেজ প্রশাসন।

সিলেট পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের একমাত্র সচল ছাত্রাবাস সুরমা ছাত্রাবাস। বর্তমানে ছাত্রাবাসটি অবৈধভাবে পরিচালনা করে আসছে বিধান কুমার শাহার নিয়ন্ত্রাধীন কাশ্মীর গ্রুপ ছাত্রলীগ। দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রাবাসটি পরিচালনা নিয়ে কলেজ প্রশাসন ও ছাত্রলীগ মুখোমুখি অবস্থানে ছিল।সম্প্রতি সিলেট পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের নতুন প্রিন্সিপাল রিহান উদ্দিন বোর্ড মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত নেন ছাত্রলীগকে ছাত্রাবাসটি কলেজ প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করে ছাত্রাবাসে হোস্টেল সুপার নিয়োগের মাধ্যমে পরিচালনা করা হবে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে কলেজ প্রশাসন একটি নোটিশ জারি করে নোটিশের কপি ছাত্রলীগকে পাঠালে ছাত্রলীগ তা প্রত্যাখ্যান করে এবং প্রিন্সিপালকে হুমকি দেয়। উক্ত নোটিশে কলেজ প্রশাসন উল্লেখ্য করেন ক্যাম্পাসের নিরাপত্তা রক্ষার স্বার্থে ছাত্রবাসে কোন অছাত্র ও বহিরাগত থাকতে পারবে না। হোস্টেলে সিট বন্টনের ক্ষেত্রে হোস্টেল সুপারের সাথে সরাসরি সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে সত্যিকারের শিক্ষার্থীদের সিট বন্টন করা হবে।

কলেজ প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্ত মানতে না পেরে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা কলেজের শিক্ষকদের লাঞ্চিত ও তাদের ব্যাবহৃত মোটরসাইকেল ভাংচুরের পাশাপাশি প্রিন্সিপালের অফিসে হামলার প্রস্তুতিকালে প্রিন্সিপাল প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করলে দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশের একটি দল এসে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে প্রিন্সিপালসহ কলেজ শিক্ষকদের নিরাপত্তা জোরদার করে।

পরবর্তীতে আজ দুপুরে প্রিন্সিপাল অত্র প্রতিষ্ঠানের সকল ডিপার্টমেন্টর চীফ ইন্সট্রাকটদের নিয়ে জরুরী বোর্ড মিটিংয়ের মাধ্যমে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে যে আজ ১৩ জানুয়ারি সন্ধ্যা পাচঁটার মধ্যে ছাত্রলীগসহ সাধারণ শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাস পরিত্যাগ ও হল খালি করে দিতে হবে।সেই পরিপ্রেক্ষিতে কলেজ প্রশাসন একটি নোটিস জারি করে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে। নোটিশ জারির পরপর ক্যাম্পাস পরিদর্শনে আসেন সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক,মদন মোহন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিপি, কাশ্মীর গ্রুপের নিয়ন্ত্রক বিধান কুমার সহ বেশ কিছু বহিরাগত ছাত্রলীগ নেতাকর্মী।পরিদর্শনকালে ছাত্রলীগের প্রতিনিধিরা নির্দেশনা দেয় ছাত্রলীগ কর্মীরা যেন কোনভাবে হল ত্যাগ না করে।

পরবর্তীতে আজ সন্ধ্যায় কলেজের টিচার্স রুমে আরেকটি জরুরী বোর্ড মিটিংয়ে সকল ডিপার্টমেন্টর শিক্ষকদের মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেয় যে ক্যাম্পাসে বর্তমানে ছাত্রলীগের যেসকল নেতাকর্মী আছে বিশেষ করে ছাত্রলীগ নেতা সৈকত চন্দ্র রিম ও তাওহিদ হাসানসহ অছাত্রদের মুচলেকা ও স্ট্যাম্পে সই দিয়ে ক্যাম্পাস ও ছাত্রাবাস পরিত্যাগ করতে হবে। যদি ছাত্রলীগ তা মেনে নেয় তাহলে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ছাত্রাবাসে থাকার অনুমতি দেওয়া হবে। কলেজ ছাত্রলীগকে তাদের সিদ্ধান্ত জানানোর জন্য আগামীকাল পর্যন্ত সময় বেধে দেয় কলেজ প্রশাসন।

এ বিষয়ে সিলেট পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষক ও প্রিন্সিপালের প্রটোকল অফিসার মাহবুব আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ভয়েস অব সিলেটকে বলেন, ক্যাম্পাসের পরিস্থিতি বর্তমানে শান্ত আছে। আমরা শিক্ষকরাও নিরাপদে আছি। আগামীকাল রাত নয়টায় সিলেট তিন আসনের এমপি হাবিবুর রহমানের বাসায় কলেজ প্রশাসন ও ছাত্রলীগের নেতারা বসে একটি সিদ্ধান্তে আসবে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশ ক্যাম্পাসের গেইটে অবস্থান নিয়েছে। বহিরাগত কাউকে ক্যাম্পাসে ঢুকতে এবং ছাত্রাবাসের কাউকে ক্যাম্পাসে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 889 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।