Voice of SYLHET | logo

১৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২৯শে জুন, ২০২২ ইং

হল খোলা ও ক্লাস কার্যক্রম শুরুর সিদ্ধান্ত বিষয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত : August 29, 2020, 20:27

হল খোলা ও ক্লাস কার্যক্রম শুরুর সিদ্ধান্ত বিষয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত

 

ঢাবি প্রতিনিধি

করোনা ভাইরাস উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় হলগুলোর আবাসন ও শিক্ষা কার্যক্রম নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবেশ পরিষদভুক্ত ক্রিয়াশীল ১৩টি ছাত্র-সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে এক ভার্চুয়াল সভা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এতে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যঝুঁকি বিবেচনায় নিয়ে আবাসিক হল খোলা ও ক্লাস কার্যক্রম শুরুর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে বলে গুরুত্বারোপ করা হয়।

সভায় অভিমত ব্যক্ত করা হয় যে, দেশের সার্বিক করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি ও শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যঝুঁকি বিবেচনায় নিয়ে আবাসিক হল খোলা ও ক্লাস কার্যক্রম শুরুর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে। এতদ্বিষয়ে পরবর্তি পরিস্থিতিতে ক্যাম্পাসে ও হলে শিক্ষার্থীদের জীবনাচার বিষয়ে একটি গাইডলাইন প্রণয়নের উপর সভায় গুরুত্বারোপ করা হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে শনিবার বিকেলে ভার্চুয়াল এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী এবং বিভিন্ন হলের প্রভোস্টবৃন্দ এই সভায় সংযুক্ত ছিলেন।

সভায় হলসমূহের সার্বিক পরিবেশ ও শিক্ষার্থীদের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে যাদের ছাত্রত্ব নেই তাদের হলে না থাকা এবং তথাকথিত গণরুম সংস্কৃতি থেকে বের হয়ে আসার ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের নেয়া উদ্যোগকে ছাত্র-সংগঠনের নেতৃবৃন্দ স্বাগত জানান এবং এ ব্যাপারে তারা হল প্রশাসনকে সার্বিক সহযোগিতা করার আশ্বাস প্রদান করেন।

বৈঠকের সিদ্ধান্তের ব্যাপারে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, স্বাস্থ্যবিধি পুরোপুরি মেনে, বিজ্ঞানসম্মত উপায়ে কীভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল সমূহ খোলা যায় সে বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। তবে কবে নাগাদ খোলা হতে পারে সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখনও নেয়া হয়নি।

বৈঠকে অংশ নেয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সদ্য সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, অনলাইন ক্লাস, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুললে শিক্ষার্থীরা কিভাবে স্বাস্থ্য ঝুঁকি মুক্ত ভাবে নিরাপদে থাকতে পারে, সেটার রোডম্যাপ নির্ধারণ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে আমরা আহ্বান জানিয়েছি, অনলাইন ক্লাসের আওতায় আসতে পারেনি যেসব অস্বচ্ছল শিক্ষার্থী, তাদের ডিভাইসের জন্য বা মোবাইল ডাটার খরচের জন্য তাদের তালিকা করে ইউজিসি বা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের মাধ্যমে আর্থিক অনুদান প্রদান করার জন্য। অনলাইন ক্লাসের আওতায় না থাকা শিক্ষার্থীদের জন্য রিকভারি প্ল্যানের আওতায় যেন তাদের সাপ্লিমেন্টারি ক্লাসের ব্যবস্থা রাখা হয় সে আহ্বান রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, একই সাথে এ বছরের উন্নয়ন ফি সম্পূর্ন প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়েছে। ক্যাম্পাস খোলার পূর্বেই শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার জন্য পূর্ণাঙ্গ রোডম্যাপ ও গাইডলাইন প্রণয়ন করতে বলা হয়েছে। চাকরি প্রত্যাশী তরুণেরা করোনাকালীন সংকটের কারণে বয়সজনীত জটিলতায় যেন না পড়ে, সে ব্যাপারে উদ্যোগ গ্রহণের আশাবাদও ব্যাক্ত করা হয়েছে।

সাদ্দাম হোসেন আরও বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘ সময় ছুটি থাকার কারণজনিত সেশনজট যেন সার্বিকভাবে সমন্বয় করে সমাধান করা হয়, সে ব্যাপারে প্রশাসনিক উদ্যোগের জন্যও বলা হয়েছে।

এছাড়া, ছাত্র-সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমের সাথে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত রাখার উদ্যোগকে স্বাগত জানান, তবে তারা সকল শিক্ষার্থীর অন্তর্ভুক্তিমূলক ও সমতার ভিত্তিতে অংশগ্রহণের জন্য চাহিদা মোতাবেক প্রয়োজনীয় তথ্য-প্রযুক্তি অবকাঠামো উন্নয়ন, ডাটা প্যাকেজ ও ডিভাইস প্রদানের জন্য অনুরোধ করেন। একইসঙ্গে মূল্যায়নযোগ্য পরীক্ষা কার্যক্রম অনলাইন কার্যক্রমের আওতায় না আনার জন্যও তারা কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ জানান।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 176 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।