Voice of SYLHET | logo

১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২৯শে মে, ২০২২ ইং

করোনা প্রতিরোধে জীবাণুনাশক স্প্রে, মৌলভীবাজারে আইনজীবীসহ ২জনকে জখম

প্রকাশিত : April 16, 2020, 23:59

করোনা প্রতিরোধে জীবাণুনাশক স্প্রে, মৌলভীবাজারে আইনজীবীসহ ২জনকে জখম

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:

মৌলভীবাজারে হামলায় জেলা জর্জকোর্টের শিক্ষানবিশ আইনজীবী ও কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী গুরুতর আহত হয়েছেন। স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে রেফার্ড করা হয়। বর্তমানে তাদের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ৪নং আপার কাগাবলা ইউনিয়নের বিন্নিগ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

আহতরা হলেন জেলা জর্জকোর্টের শিক্ষানবিশ আইনজীবী ও সাংস্কৃতিক কর্মী সুলতানুল আরেফিন খাঁন তাজুল (৩০), এবং তারই ভাতিজা আপার কাগাবলা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাবেক সভাপতি মরহম আব্দুর রহমান (ছুফি মিয়ার) বড় ছেলে কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী হাফেজ আশিকুর রহমান (২২)।

স্থানীয়রা জানায়, বর্তমান করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে সকাল থেকে গ্রামের বিভিন্ন রাস্থা-ঘাট এবং বাড়ির আঙ্গিনায় কয়েক যুবকদের নিয়ে তারা জীবাণুনাশক স্পে করে দুপুর পর্যন্ত। সেই পোষাক পড়া অবস্থায় বিন্নিগ্রামের সাবেক মেম্বার তালেব আলী তাদের সাথে অসদাচরন করে কথা কাটাকাটি করেন। পরে ঝড়ে পড়ে যাওয়া একটি গাছের ডাল-পালা সরানুবস্থায় তালেব আলীর নেতৃত্বে তার ভাই মোবাশ্বের আলী ও সাহেদ আলীসহ বেশ কয়েকজন মহিলা পুরুষ ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাদের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়।

তাদের ধারালো দায়ের কোপে মারাত্মক জখম হয়ে হাফেজ আশিকুর রহমান ও সুলতানুল আরেফিন বাড়ির আঙ্গিনায় পড়ে থাকে। খবর পেয়ে মৌলভীবাজার কলেজ ছাত্রলীগ নেতা হৃদয় খাঁন তাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে তাদের পর্যাপ্ত রক্তক্ষরনের কারনে অবস্থা অবনতি হলে সিলেট ওসমানী মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বিকাল চারটায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তাদের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানাগেছে।

মৌলভীবাজার কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী ও হাফেজ আশিকের ছোটভাই আব্দুল হাদি খাঁন জানান, মোবাশ্বেরের বেশ কিছু সন্ত্রাসী কার্যকলাপের খবর এলাকাবাসীর জানা আছে। এসব বিষয় নিয়ে স্থানীয় শালিস বৈঠকসহ থানায়ও অভিযোগ করেছেন ভূক্তভোগিরা। এছাড়া সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের কারনে তিনি একটি মামলায় সাজা কেটেছেন বেশদিন। হাফেজ আশিকুর রহমান সরকারী কলেজ ছাত্রলীগ একজন কর্মী বলে তিনি জানান। এছাড়া তাঁর বাবা মরহম আব্দুর রহমান কাগাবলা ইউনিয়নের ১ নং ওয়াড যুবলীগের সভাপতি ছিলেন। তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এ সন্ত্রাসী হামলার সাথে যুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সাবেক ইউপি সদস্য তালেব আলী বলেন, পারিবারিক একটি আলোচনা নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয় পক্ষের কয়েকজন আহত হয়েছেন।

মৌলভীবাজার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আলমগীর হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ফোর্স পাঠানো হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতার করার জন্য আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন আসামীরা গুরুত্বর আহত থাকায় এখনও অভিযোগ দায়ের করেননি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 405 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।