সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম জানান, সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সিলেট মহানগরীতে করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন মোট ৩ হাজার ৫৯ জন। এরমধ্যে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২ হাজার ৫৫০ জন, র‌্যাব-৯ সিলেটে ৭৯ জন এবং পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে ৪৩০ জন টিকাগ্রহণ করেছেন।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেটের উপ পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান জানান- আজ সোমবার সিলেট জেলার ১২ উপজেলার ২৪টি বুথ ও সিএমএইচের চারটি বুথে করোনা টিকা গ্রহণ করেছেন মোট ২৮৪৫ জন। সব মিলিয়ে সোমবার সিলেট জেলা ও মহানগরে মোট ৫ হাজার ৯০৪ জন টিকা গ্রহণ করেছেন। এর মধ্যে নারী ২১০৩ জন এবং ৩৮০১ পুরুষ।

অপরদিকে সারা দেশের মতো সিলেট জেলায় প্রতিনিয়ত বাড়ছে করোনা টিকা গ্রহীতার সংখ্যা। পরিসংখ্যান অনুযায়ী- গত ৭ ফেব্রুয়ারি প্রথম দিন সিলেট জেলায় করোনা টিকা গ্রহণ করেছিলেন ৯৪৮ জন। দ্বিতীয় দিনে টিকা নেন ১৭৪৮ জন। তৃতীয় দিন ২৯৬৪ জন এ টিকা গ্রহণ করেন। চতুর্থ দিনে টিকা নেন ৪৭৫৭ জন। পঞ্চম দিনে এসে টিকা গ্রহণ করেছেন ৫৫৪৮ জন এবং ষষ্ঠ দিনে ৭০০৬ জন টিকা গ্রহণ করেছেন। রোববার সপ্তম দিনে জেলা ও মহানগরে মোট ৫ হাজার ৭৬ জন টিকা গ্রহণ করেন। সর্বশেষ আজ সোমবার টিকা নেন ৫৯০৪ জন। সব মিলিয়ে ৮ দিনে সিলেট জেলায় টিকা গ্রহীতার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৩ হাজার ৯৫০ জনে।

এর আগে গত রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) সারাদেশের মতো সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে টিকাদানের মধ্য দিয়ে সিলেটে কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম শুরু করা হয়। সিলেটে প্রথম টিকাগ্রহণ করেন বিভাগীয় কমিশনার মো. মশিউর রহমান এনডিসি।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের আওতায় করোনার টিকাদানের জন্য স্থাপিত মোট ১৪টি বুথের মধ্যে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১২টি বুথ ও সিলেট বিভাগীয় পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে ২টি বুথ স্থাপন করে চলছে টিকা কার্যক্রম। সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার র‍্যাব-৯ সিলেটের সদরদপ্তরেও করোনাভাইরাসের টিকা সেন্টার করা হয়েছে।

এদিকে গত বুধবার থেকে সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকার বাসিন্দাদের জন্য আলাদা ৩টি রেজিস্ট্রেশন বুথ চালু করেছে সিলেট সিটি কর্পোরেশন (সিসিক)। এর মধ্যে সিটি কর্পোরেশন ভবনের অভ্যন্তরে ২টি অনলাইন রেজিস্ট্রেশন বুথ ও সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অভ্যন্তরে একটি বুথ চালু করা হয়েছে