Voice of SYLHET | logo

৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২১শে এপ্রিল, ২০২১ ইং

হঠাৎ আসা গরম বাতাসে হাওরের দুধভরা ধানে চিটা

প্রকাশিত : এপ্রিল ০৭, ২০২১, ১৮:০৩

হঠাৎ আসা গরম বাতাসে হাওরের দুধভরা ধানে চিটা

বৃদ্ধ আমির উদ্দিন অনেক আশা নিয়ে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ছায়ার হাওরে ইরি-বোরো আবাদ করেছিলেন। ৬ কেদার জমিতে চাষ করেছেন হাইব্রিড জাতের ধান হীরা। সবুজ ধান গাছে থোড় বা দুধেভরা, কয়েক দিনের মধ্যেই ধান পুষ্টি হবে – শক্ত হবে। এরপর ধীরে ধীরে পাকতে শুরু করবে। কিন্তু, হঠাৎ করে আসা গরম বাতাসে তার ইরি-বোরো ধান অন্য রকম হয়ে গেছে। সবুজ রং এর ধান হয়ে গেছে ধবধবে সাদা।
শাল্লা উপজেলার মনুয়া গ্রামের কৃষক আমির উদ্দিন ধানের জমির এই অবস্থায় দিশেহারা। একই গ্রামের আরেক কৃষক মমিনুল হক ২৪ কেদার জমি চাষ করেছেন একই হাওরে। হাইব্রিড জাতের ধান হীরা ও ব্রি ২৮ ধান আবাদ করেছেন তিনি। ব্রি ২৮ ধান কিছুটা রক্ষা পেলেও ধবধবে সাদা হয়ে গেছে হীরা। উচ্চ ফলনশীল হীরা জাতীয় ধানসহ নানা জাতের ধান গাছ যখন শীষ বের হবে, কোন কোন জমির সবুজ ধান পাকতে শুরু করবে ঠিক এই মুহূর্তের এমন ঘটনায় হাওর পারের কৃষকরা এখন বাকরুদ্ধ। হঠাৎ আসা গরম বাতাস কৃষকদের সব স্বপ্ন তছনছ করে দিয়েছে।
বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট এর পরিচালক ড. মো. আবু বকর সিদ্দিক সিলেটের ডাককে জানিয়েছেন, কেবল শাল্লা উপজেলায়ই নয় জামালগঞ্জ, খালিয়াজুড়ি, ইটনাসহ বিভিন্ন হাওরের ধান গরম বাতাসে নষ্ট হয়েছে। এটা প্রাকৃতিক দুর্যোগ, এখানে কৃষি অধিদপ্তর বা অন্য কারো করার কিছু নেই। চিটা হওয়ায় ঐএলাকায় এবার উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ব্যাহত হতে পারে বলে তার আশঙ্কা।
কৃষিসম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও স্থানীয় হাওরের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত সোমবার বিকেলে হঠাৎ করে গরম বাতাস আসে। এ সময় কোন ঝড়বৃষ্টি হয়নি। কেবল তীব্র গতির গরম বাতাস ছিল। পরদিন সকালে কৃষকরা হাওরে গিয়ে দেখতে পান সবুজ ধান ধবধবে সাদা হয়ে যাচ্ছে। সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জ জেলার সর্ববৃহৎ হাওর ছায়ার হাওর, কালিগুটা ও উদগলবিল হাওরের বিভিন্ন জায়গায় এমন চিত্র দেখে কৃষকরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন। দু’দিনের মধ্যে ধান গাছের রং পরিবর্তন হতে থাকে। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে শাল্লা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা  এ কে এম মুবিনুজ্জামান চৌধুরীকে জানানো হলে তারা হাওরে ছুটে যান। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর থেকে কৃষকদেরকে দ্রুত ১০ গ্রাম জিংক মিশ্রিত করে ৫ কেজি পটাশ প্রদান করা হয় এবং তা এক বিঘা জমিতে স্প্রে করার পরামর্শ দেয়া হয়। এছাড়াও, লেদা পোকা (বিবিএইচ) নামক এক ধরনের পোকাও এসব ক্ষেতে পাওয়া গেছে। এর আগে কখনো এ ধরনের পোকা দেখা যায়নি। এ পোকা দিনের আলোতে জমিতে থাকে এবং রাতে বিদ্যুতের আলোতে গ্রামীণ ঘর-বাড়িতে চলে যায়।
গতকাল মঙ্গলবার কৃষি বিভাগের একটি টিম শাল্লার ঐ হাওরগুলোর ধানক্ষেত সরেজমিন দেখতে যান। শাল্লা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এ কে এম মুবিনুজ্জামান চৌধুরী সিলেটের ডাককে বলেন, হঠাৎ করে আসা গরম বাতাসে ধানে চিটা দেখা দিয়েছে। কোন ধরনের ঝড়বৃষ্টি ছাড়া শুধু গরম বাতাসের তাপমাত্রা ছিল ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসেরও বেশি। বাতাস আসার পরে বৃষ্টি হলে ধানের এই ক্ষতি হতো না। আমরা নষ্ট হওয়া ধানে দ্রুত স্প্রে করার পরামর্শ দিয়েছি।
স্থানীয় সূত্র জানায়, এই হাওরগুলো সুনামগঞ্জ জেলার শাল্লা ও জামালগঞ্জ, নেত্রকোনা জেলার খালিয়াজুড়ি ও কিশোরগঞ্জ জেলার ইটনা উপজেলার মধ্যে পড়েছে। তিনটি হাওরই বৃহৎ এবং হাওরগুলোর একপ্রান্ত থেকে অপর প্রান্ত চোখে দেখা যায় না।
শাল্লার ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক আনিসুল ইসলাম চৌধুরী জানান, কৃষি বিভাগ থেকে যে মেডিসিন দ্রুত স্প্রে করতে বলা হয়েছে-সেগুলোর সংকট রয়েছে। শাল্লায় এই মেডিসিন নেই বললেই চলে। পার্শ্ববর্তী আজমিরীগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে এই মেডিসিন নিয়ে আসতে হচ্ছে।
স্থানীয় কৃষকরা আরো জানিয়েছেন, পোকার আক্রমণের কারণে এসব ক্ষেতের ধান কাটা না ও যেতে পারে। ফলে গো খাদ্যের সংকট দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা কৃষকদের।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সুনামগঞ্জের উপ-পরিচালক মো. ফরিদুল হাসান গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সিলেটের ডাককে বলেন, আমরা সরেজমিনে দেখতে শাল্লায় আছি। গরম বাতাসে ধানে চিটা দেখা দিয়েছে। আমরা ধান স্বাভাবিক করতে কৃষকদেরকে পরামর্শ দিয়েছি। চেষ্টার কোন কমতি নেই।
তিনি বলেন, আর কয়দিন পরই ধান কাটা শুরু হয়ে যাবে। এই হাওরের কৃষকদেরও অনেক স্বপ্ন ছিল। প্রসঙ্গত, কৃষি বিভাগের তথ্য অনুযায়ী চলতি ইরি-বোরো মৌসুমে সুনামগঞ্জ জেলার ছোট-বড় ১৩৫টি হাওরে ২ লাখ ২৩ হাজার ৩৩০ হেক্টর জমিতে চাষাবাদ করা হয়েছে। এই জমি থেকে ৮ লাখ ৮৫ হাজার মেট্রিক টন চাল উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে জেলা কৃষি বিভাগ। তবে, কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, হঠাৎ করে আসা গরম বাতাসে ধানে চিটার ফলে উৎপাদন ব্যাহত হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 39 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।

Design & Developed By : amdads.website