Voice of SYLHET | logo

১৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

নিখোঁজের ৭দিন পর নারায়নগঞ্জ থেকে উদ্ধার টিএসসির পথশিশু

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ০৮, ২০২০, ১৯:২৯

নিখোঁজের ৭দিন পর নারায়নগঞ্জ থেকে উদ্ধার টিএসসির পথশিশু

 

ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) এলাকায় ফুল বিক্রি করা পথশিশু জিনিয়াকে নিখোঁজের ৭দিন পর উদ্ধার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

সোমবার রাতে নারায়ণগঞ্জের পঞ্চবটী থেকে ৯ বছরের এই পথশিশুকে উদ্ধার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এ ঘটনায় লোপা তালুকদার নামে এক তরুণীকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। লোপা তালুকদারের পুরো পরিচয় জানা না গেলেও হারিয়ে যাওয়ার পর জিনিয়ার মা যে দুজনকে সন্দেহ করে তাদের বর্ণনা দিয়েছিলেন পুলিশের কাছে, লোপা তাদের মধ্যে একজন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোয়েন্দা পুলিশের রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) মিশু বিশ্বাস।

তিনি জানান, সোমবার রাতে নারায়ণগঞ্জের পঞ্চবটী থেকে নয় বছরের শিশু জিনয়াকে উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে ফুসলিয়ে ও নানা প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। কী উদ্দেশ্যে জিনিয়াকে সেখানে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তা আমরা জানার চেষ্টা করছি। জিজ্ঞাসাবাদ করে পরে বিস্তারিত বলা যাবে।

সোমবার রাতে মিশু বিশ্বাস ফেসবুকে এক পোস্টের মাধ্যমে জিনিয়াকে উদ্ধারের খবর নিশ্চিত করে লিখেন, ‘টিএসসির প্রিয়মুখ জিনিয়াকে নারায়ণগঞ্জ থেকে একটু আগে আমরা উদ্ধার করেছি। সে সুস্থ এবং স্বাভাবিক আছে। আবারও সে তার হাসিমুখ দিয়ে ক্যাম্পাস আলোকিত করবে, টিএসসির এই মাথা থেকে ওই মাথা ছুটে বেড়াবে।’

‘গত কয়েকদিনে অনেকেই জিনিয়াকে উদ্ধার করতে পেরেছি কি না জানতে চেয়েছেন, তার জন্য দুশ্চিন্তা করেছেন। আপনাদের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা। জিনিয়াকে উদ্ধারে অক্লান্ত পরিশ্রম করার জন্য রমনা জোনাল টিমের সকল সদস্যসহ শাহবাগ থানার সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ।’

ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থী বা বেড়াতে আসা নানা মানুষের কাছে ফুল বিক্রি করতো জিনিয়া। ফুল বিক্রির সুবাদে ছোট্ট এই শিশুটি অনেকের কাছেই পরিচিত এক মুখ। টিএসসি, কলা ভবন বা কার্জন হল এলাকা সব জায়গায়ই বিচরণ ছিল তার। ফুল বিক্রি করা এই ছোট্ট শিশুটির খোঁজ মিলছির না গত সাত দিন ধরে।

গত মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ৯টার দিকে সর্বশেষ পথশিশু জিনিয়াকে টিএসসি সংলগ্ন সোহরাওয়ার্দী উদ্যান গেইটে দাঁড়িয়ে অপরিচিত দুজন নারীর সঙ্গে ফুচকা খেতে দেখেছিলেন তার মা সেনুরা বেগম। এরপরেই উধাও হয়ে যায় জিনিয়া।

টিএসসি ও আশেপাশের এলাকায় খোজাখুজির পর না পেয়ে পরের দিন বুধবার জিনিয়ার মা সেনুরা বেগম রাজধানীর শাহবাগ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন।

মঙ্গলবার সকালে সেনুরা বেগম ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, ‘পুলিশ বলেছে যে ওই মহিলারাই আমার মেয়েকে ফুসলিয়ে ও নানা প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু এখনও আমার বুকের মানিক মেয়েকে দেখতে পারি নাই। আজকে শাহবাগ থানায় নিয়ে আসবে বলেছে।’

সিনথিয়া (৭), জিনিয়া (৯) এই দুই মেয়ে ও ছেলে পলাশকে (১৭) নিয়ে টিএসসির ফুটপাতে দিনাতিপাত করেন জিনিয়ার মা। ট্রাকচালক স্বামী এক দুর্ঘটনায় মারা যাওয়ার পর গত সাত বছর আগে কিশোরগঞ্জের ভৈরব থেকে তিন সন্তানকে নিয়ে টিএসসি এলাকায় চলে আসেন সেনুরা বেগম। দিনের বেলা ফুল বিক্রি করে মায়ের সংসারে জোগান দেয় জিনিয়া ও সিনথিয়া। আর পলাশ কাজ করে একটা চায়ের দোকানে।

নিখোঁজ হওয়ার পর থেকেই বিষয়টি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কেন্দ্রীক বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক গ্রুপে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হয়েছে। খোঁজ করে জিনিয়াকে ফিরিয়ে আনতে প্রশাসনে কর্মরত বিশ্ববিদ্যালয়ের অগ্রজদের হস্তক্ষেপও কামনা করছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 25 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।

Design & Developed By : amdads.website