Voice of SYLHET | logo

২৬শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ৯ই এপ্রিল, ২০২০ ইং

ক্রিকেটে অদ্ভুত ২১

প্রকাশিত : মার্চ ২৫, ২০২০, ১৩:২৬

ক্রিকেটে অদ্ভুত ২১

শেখ রিদওয়ান হোসাইন:

বাংলাদেশ,ভারত,শ্রীলঙ্কা,পাকিস্তান,আফগানিস্তান,নেপাল সহ এশিয়ায় বেশিরভাগ দেশে ক্রিকেটকে ভালোবাসার মানুষের অভাব নেই। বাংলাদেশের মানুষ তো ভাতের সাথে ক্রিকেট খায়! বাংলাদেশের একটি জয় আনন্দের সাগরে ভাসে পুরো দেশ। তখন মুশফিক পাঁচ ওয়াক্ত নামাজি আর লিটন খাঁটি হিন্দু বলে কাউকে আলাদা করতে কেউ পারেনা। এক কাতারে থেকে সুখ-দুঃখের ভাগাভাগি করতে শিখিয়েছে এই ক্রিকেটই।

এই খেলায় যে কিছু অদ্ভুততুড়ে জিনিস ঘঠেছে তা কি হয়তো অনেকেই জানেন? যারা জানেন আরোও একবার মনে করে নেন- আর যারা জানেন না,আর দেরি কেনো?

১/শহীদ আফ্রিদীর কথা মনে হলেই তার অবিশ্বাস্য সেই ৩৬ বলে সেঞ্চুরির কথা আমাদের চোখে ভাসে। এই সেঞ্চুরিটি বেশ কয়েকবছর ধরেই দ্রুততম ওডিআই শতক হিসেবে অক্ষত ছিলো। জানেন এই শতকটি করতে আফ্রিদী কার ব্যাট ব্যবহার করেছিলেন? এটি ছিলো শচীনের ব্যাট!

২/১৩৭ বছরের টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে কেউই টেস্টে প্রথম বলে ছক্কা হাঁকায় নি বা এই সাহসও করতে পারেনি। তবে নাম যখন তার ক্রিস গেইল,ছক্কা মেরেই রেকর্ড গড়বেন এটি সহনীয়! ২০১২ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে অভিষেক হওয়া সোহাগ গাজীর প্রথম বলেই ছক্কা হাঁকিয়ে এই বিরল রেকর্ড করেন “ইউনিভার্সেল বস” খ্যাত ক্রিস গেইল।

৩/খেলার মাঠে চুম্বন! হ্যাঁ, এমনটাই হয়েছিলো ১৯৬০ সালে আব্বাস আলী বাইগের সাথে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে একটি টেস্টে। ব্রাবউন স্টেডিয়ামের নর্থ স্টেন্ড থেকে একটি সুন্দরী তরুণী আব্বাস আলীর গালে দাগ লাগিয়ে চলে যায়!

৪/টেস্টে শচীনের থেকেও গড় বেশি তার বাল্যকালের বন্ধু ভিনোদের। ভিনোদ সাহেব ১৭ টি টেস্ট খেলে দুটি ব্যাক টু ব্যাক দ্বি-শতকের দেখায় এভারেজ হয়েছিলো ৫৪.২০ যেখানে শচীনের টেস্ট এভারেজ ৫৩.৭৮(শচীনের ২০০ টেস্টের পরিসংখ্যানে)

৫/টেস্টে সুনীল গাভাসকার নিঃসন্দেহে একজন কিংবদন্তি। টেস্টে প্রথম দশ হাজার রানের মাইলফলক তার দখলে।এমনি আছে ৩৪ শতকও। তবে এই ফরম্যাটেই তার একটি তিক্ত রেকর্ড রয়েছে! টেস্টে প্রথম বলেই আউট হয়ে গেছেন এমন রেকর্ড সর্বোচ্চটা তার দখলেই (৩ বার)।

৬/এম এল জইসিমা এবং রবি শাস্ত্রী শুধু এই দুজন হলেন ভারতের হয়ে টেস্টে পঞ্চম দিনে পুরোদিন খেলার রেকর্ড বুকে!

৭/টেস্ট ক্রিকেট খেলেছেন দুটি দলের হয়! হ্যাঁ, এমনটিই ঘটেছে সাইফ আলী খানের দাদা ইফতেখার আলী খানের সঙ্গে। তিনি একমাত্র ক্রিকেটার যিনি টেস্টে ভারত ও ইংল্যান্ড এই দুটি দলের সাথে হয়ে খেলেছেন।

৮/স্যার ডন ব্রাডমানকে টেস্টে হিট উইকেট হয়েছেন মাত্র একবার। আর সেই সৌভাগ্যবান বোলার হলেন লালা অমরনাথ।

৯/ইন্ডিয়া পাকিস্তান ম্যাচ মানেই বাড়তি উত্তেজনা। সেই ইন্ডিয়া পাকিস্তান ম্যাচে মারাত্মক রকম কোইন্সিডেন্স দেখা পেয়েছিলো ক্রিকেট বিশ্ব। দেখুন সেই দুটি ম্যাচের পুনরাবৃত্তি!

১০/ইন্ডিয়া হলো একমাত্র দল যে দল ৬০ ওভার,৫০ ওভার ও ২০ ওভারের বিশ্বকাপ জিততে পেরেছে!

১১/এ্যালেস স্টেয়ার্ট,যার জন্ম ৮-৪-৬৩ সালে। তার টেস্ট সংখ্যাও বের করুন ‘-‘ এটা সরিয়ে! হ্যাঁ, ৮৪৬৩ হলো তার মোট টেস্ট রান।

১২/কেনিয়ার আসিফ করিমের নাম তো শুনারই কথা৷ তিনি কেনিয়ার জার্সি গায়ে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট খেলার পাশাপাশি টেনিসের ডেভিস কাপও খেলেছিলেন!

১৩/ ৫২ বছর বয়সে এসেও টেস্ট ক্রিকেট! হ্যাঁ এমন আশ্চর্যজনক ঘটনাটির একক মালিক ইংল্যান্ডের উইলফ্রেড রোডস৷ বর্তমান সময়ে এসে এই রেকর্ড ভাঙা হয়তো একেবারে অসম্ভবই বটে।

১৪/ক্রিকেটে এ্যালেন বোর্ডার জনপ্রিয় একটি নাম। তার ফিটনেস লেভেল একবার চিন্তা করুন এটা দেখে– তিনি একমাত্র ক্রিকেটার যিনি একাধারে টানা ১৫৩ টেস্ট খেলে বিরল কীর্তিটি গড়ে রেখেছেন।

১৫/ক্রিকেট ইতিহাসের প্রথম টেস্টটি অস্ট্রেলিয়া জিতেছিলো ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৪৫ রানে এমনকি সেনটেনারি টেস্টেও, ১৯৭৭ সালে। অর্থাৎ, ১৮৭৭ সালের প্রথম টেস্টে অজিরা ইংল্যান্ডকে হারায়। ঠিক ১০০ বছর পর সেই মাঠে একই দিনে এসে আবারও ইংল্যান্ডকে হারায় তারা।

১৬/২০০০ সালে লর্ডসের একটি টেস্টে ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি লড়াইয়ে দুই দলকে একই দিনে ব্যাট করতে হয়েছিলো! তার মানে টেস্টের একই ৪ ইনিংস! হ্যাঁ, এমনটিই ঘটেছিলো। এটার পুনরাবৃত্তি হয়েছিলো ১১ বছর পর কেপ টাউনে সাউথ আফ্রিকার সাথে অস্ট্রেলিয়ার।

১৭/জেম লেকার ও অনিল কুম্বলের টেস্টে একই ইনিংসে ১০ উইকেটের বিশ্বরেকর্ডের কথা তো জানাই আছে। আর এই দুটি বিশ্বরেকর্ড নিজের চোখে দেখার সৌভাগ্য হয়েছিলো মাত্র ১ জনের। তার নাম রিচার্ড স্টোকসের। জেনে রাখা ভালো এই দুটি বিশ্বরেকর্ডের গ্যাপ ছিলো ৪৩ বছর!

১৮/তারিখ সেদিন ১১.১১.১১৷ আর সময় ছিলো ১১.১১।ঠিক তখন জয়ের জন্য সাউথ আফ্রিকার প্রয়োজন ছিলো ১১১!

১৯/ নিজের জন্মদিনে ইন্টারন্যাশনাল হ্যাট্রিক! এরকম বিরল রেকর্ডও ক্রিকেট দেখেছে আর এর দখলদারিত্ব হলো পিটার সিডলের। ম্যাচটি ছিলো ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ব্রিসবেনে ২৫ নভেম্বর, ২০১০ এ।

২০/ ক্রিকেটার মার্ডার কেস এর আসামি! এমন একটি কুকীর্তির রেকর্ড ওয়েস্ট ইন্ডিজের লেসি হিলটনের।

২১/ইন্ডিয়ার হয়ে খেলার আগে শচীন খেলেছিলেন পাকিস্তানের জার্সি গায়ে! হ্যাঁ, অবাক হলেও ঘটনা সত্য। ১৯৮৭ সালে পাকিস্তান বনাম ইন্ডিয়া ম্যাচে পাকিস্তান দলের হয়ে ফিল্ডিংয়ে নেমেছিলেন শচীন সাবস্টিটিউট হিসেবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সংবাদটি পড়া হয়েছে 102 বার

যোগাযোগ

অফিসঃ-

উদ্যম-৬, লামাবাজার, সিলেট,

ফোনঃ 01727765557

voiceofsylhet19@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ

সম্পাদক মন্ডলি

ভয়েস অফ সিলেট ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।

Design & Developed By : amdads.website